বাংলাদেশ সেন্টারের অর্থ সংগ্রহের দ্বিতীয় পর্ব “সত্য সুন্দর আনন্দ কল্যাণ”
খুরশীদ শাম্মী, মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১১, ২০১২


গত ডিসেম্বর ৯, ২০১২, রবিবার শীতের সন্ধ্যা, কনকনে ঠান্ডা হাওয়া, হাত পা যমে যাচ্ছে তার উপরে আবার হালকা তুষারপাত। পরেরদিন সকালে প্রায় সকলকেই ছুটতে হবে জীবিকার প্রয়োজনে যার যার কাজে, এরকম অবস্থায় সকলেই চায় একটু উষ্ণ পরিবেশে আরাম করতে। কিন্তু সেদিন সকল প্রতিকুলতার মধ্যেও টরন্টোর ড্যানফোর্থে বাংলাদেশ সেন্টারে বেশ অনেকজন গুণীমানুষদের উপস্থিতি। তাঁদের উপস্থিতির কারন ছিলো কথাশিল্পী আহমেদ হোসেন এবং কন্ঠশিল্পী সারাহ বিল্লাহ এর “সত্য সুন্দর আনন্দ কল্যাণ” নামে বাংলাদেশ সেন্টার এর জন্য অর্থ সংগ্রহ অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানটি আয়োজন করেছিলেন মেরী রাশেদীন এবং ম্যাক আজাদের নেতৃত্বে বাংলাদেশ সেন্টার এবং কমিউনিটি সার্ভিসেস। অনুষ্ঠানে শিল্পী আহমেদ হোসেন কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের অনেক কবিতার পাশাপাশি কবি রুদ্র মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, আসাদ চৌধুরী, নির্মলেন্দু গুণের কবিতা সহ আরো অনেক কবির কবিতা আবৃত্তি করেন। তবে বিজয় মাস উপলক্ষ্যে এম আর আক্তার মুকুলের চরমপ্ত্র পাঠ উপস্থিত সকল দর্শকদের বেশ আনন্দ দিয়েছে। কন্ঠশিল্পী সারাহ বিল্লাহ, যার কন্ঠ এবং গায়কী দুটোই অনেক প্রশংসনীয়, যার কন্ঠের লালনগীতি শ্রোতাদের কানে মধুরকরে মিশে যায় সেদিন তিনি লালনগীতির পাশাপাশি রবীন্দ্র সঙ্গীত এবং নজরুলগীতি পরিবেশন করে দর্শকদের হৃদয় স্পর্শ করেছেন। তবে না বললেই না যে সে রাতের দু’জন শিল্পীই তাঁদের মূল পরিবেশনার পাশাপাশি কথা এবং বিনয় দিয়ে জয় করেছেন উপস্থিত সকল দর্শকদের মন। সারাহ বিল্লাহর গানের সাথে তবলায় ছিলেন রনি পালমার এবং লালনগীতির পুরো স্বাদ দিতে অন্যান্য বাদ্যযন্ত্র নিয়ে মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন আশেক ওয়াহেদ আশিফ এবং ম্যাক আজাদ। উপস্থিত সকল গুণিশিল্পী সম্মিলিতভাবে জাতীয় সঙ্গীত গেয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি করেন। আমরা শিল্পী দু’জনের এবং সকল কলাকুশলীদের এই মহৎ উদ্যোগকে সন্মান করি এবং তাঁদের দীর্ঘায়ু এবং সকল প্রকার সফল্য কামনা করি।