টরন্টোতে এখন শীত নেমে গেছে
সাহিদুল আলম টুকু, বুধবার, অক্টোবর ১০, ২০১২


টরন্টোতে এখন শীত নেমে গেছে। কানাডা প্রধানত শীত প্রধান দেশ। সেলসিয়াসে তাপমাত্রা দুই অঙ্ক থেকে এক অঙ্কে রাতের বেলায়।
প্রায় দুই মাস গরমের সময় পার করে এখন আমরা শীতের দ্বারপ্রান্তে। গাছের পাতার রঙ পরিবর্তন হচ্ছে- একইসাথে পাতা ঝরার মর্মর ধ্বনি। টি শার্ট-এর সাথে এখন হাল্কা জ্যাকেট, স্যান্ডেলের পরিবর্তে এখন জুতো। সিজন পরিবর্তনের সাথে মনেরও পরিবর্তন- সাথে শরীরও। তাই সতর্কতা অবলম্বন করা প্রয়োজন চলাফেরায় খাওয়া-দাওয়ায়। এই সিজন পরিবর্তনের সময় কি করণীয় ? তা যারা কানাডায় থাকেন তাঁরা সকলেই অবগত।
কানাডায় শীতের পোশাক জাতি-ধর্ম-সংস্কৃতি নির্বিশেষে এক হয়ে যায়। ভারী জুতো-মোজা পায়ে, গায়ে কয়েক স্তরের উপর ভারি জ্যাকেট বা লঙ কোট, মাথায় কান টুপি আর হাতে হাত মোজা। কিন্তু গরমকালের চিত্র ভিন্ন। আমরা বাংলাদেশী ছেলেরা গরমকালে টি-শার্ট, ফতুয়া বা পাঞ্জাবী পড়ি। আর মেয়েরা পড়ে সালোয়ার-কামিজ আর ঐতিহ্যবাহী শাড়ী। অন্যরা পড়ে তাঁদের নিজেদের সংস্কৃতির পোশাক। কিন্তু শীতকালে সকলের পোশাকের সংস্কৃতি এক হয়ে যায়। শীতকাল কানাডায় সকল মানুষকে এক করে ফেলে বিশেষ করে পোশাকে। অন্য সময়য়ের চিত্র ভিন্ন হলেও।