কানাডার নাগরিকত্ব অর্জন কঠিন হয়ে যাচ্ছে
এইদেশ ডেস্ক, মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২৯, ২০১৩


কানাডার স্থায়ী বাসিন্দা (পারমানেন্ট রেসিডেন্ট) হিসেবে কানাডায় থাকার প্রয়োজনীয় সময় পরও নাগরিকত্ব লাভ কঠিন হয়ে পড়ছে। প্রতারনা বা ভূয়া তথ্য দিয়ে নাগরিকত্ব লাভ ঠেকাতে সরকারের ন্ওেয়া কঠোর ব্যবস্থার ফলে নাগরিকত্বের জন্য আবেদনকারিরা দীর্ঘসূত্রতার বেড়াজালে আবদ্ধ হচ্ছে ।স্থায়ী বাসিন্দা হিসেবে নির্দিষ্ট সময় বসবাসের পর নাগরিকত্বের আবেদন করে হাজার হাজার আবেদনকারীকে ৫/৬ বছর অপেক্ষা করতে হচ্ছে। ক্ষেত্র বিশেষে অনেককে ৯ বছর পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকতে হচ্ছে নাগরিকত্বের জন্য সিদ্ধান্ত পেতে।
প্রচলিত নিয়ম অনুসারে কানাডার স্থায়ী বসিন্দারা (পারমানেন্ট রেসিডেন্ট) তিন বছর টানা বসবাসের পর নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করতে পারে।পরীক্ষাসহ নাগরিকত্ব আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে প্রায় ২১ মাস লেগে যায়। ফলে অধিকাংশক্ষেত্রেই পাঁচ বছর লেগে যায় কানাডার নাগরিকত্ব পেতে।গত মে মাসে কানাডা সরকার বাড়তি একটি শর্ত যোগ করেছে। আবেদনকারী যে পুরোটা সময় কানাডায়ই বসবাস করেছে সেটি প্রমানের জন্য চার পাতার বাড়তি একটি ফরম পূরন করতে হচ্ছে। এই ফরমের সঙ্গে ট্যাক্স রিটার্ণের কাগজ,পে স্টাব, যারা দেশের বাইরে ভ্রমন করেছেন তাদের বিমানের টিকেট সংযুক্ত করতে বলা হচ্ছে। নাগরিকত্ব পাওয়ার আগে স্বল্প সময়ের জন্য কানাডার বাইরে ভ্রমনকারীদের নাগরিকত্ব আবেদন প্রসেস করতে বাড়তি ১৫ মাস সময় নেওয়া হতো। কিন্তু চলতি মাস থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে,কানাডায় অনিযমিত বসবাসকারী বা যারা বিদেশ ভ্রমন করেছেন তাদের নাগরিকত্ব আবেদন সম্পন্ন করতে অতিরিক্ত চার বছর সময় লাগবে।
ইমিগ্রেশন ডিপার্টমেন্ট এর সূত্রমতে, মে ৭ থেকে সেপ্টেম্বর ২৮ সময়সীমার মধ্যে নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করা প্রার্থীদের মধ্যে ৬০ হাজার আবেদনপত্র আরো নিবিড় পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।এর মধ্যে ১১ হাজার আবেদনকারীকে বাড়তি চার পাতার ফরম পূরন করতে বলা হয়েছে। ইমিগ্রেশন বিভাগের মুখপাত্র পল নর্থকট টরন্টো স্টারকে বলেছেন, যখনি কোনো আবেদনপত্র বাড়তি পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য পাঠানো হয় কিংবা নতুন তথ্য জানতে চাওয়া হয় তখন ওই আবেদনপত্রগুলো আর সাধারণ রুটিনের মধ্যে থাকে না। এদের নিষ্পত্তি হতে অতিরিক্ত সময় লেগে যায় এবং সেই সময়টা আবেদনপত্রের ধরন অনুসারে ভিন্ন ভিন্ন হয়। তিনি বলেন, এই আবেদনপত্রগুলো কতো সময় ধরে নিষ্পত্তির অপেক্ষায় আছে সেটিও তারা হিসেবের মধ্যে ধরেন না।